যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা: ৬ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদন্ড

প্রথম পাতা » ছবি গ্যালারী » যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা: ৬ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদন্ড
রবিবার, ২ জুন ২০২৪



যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা: ৬ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদন্ড

রূপগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক যুবককে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। একইসাথে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রবিবার (২ জুন) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালত ওই রায় ঘোষণা দেন। এ সময় অভিযুক্ত আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তথ্যটি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আবদুর রশিদ।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম আব্দুর রহিম (২৮)। সে রূপগঞ্জের মাইলাব এলাকার মো. আব্দর রব’র ছেলে। নিহত ফাতেমা রূপগঞ্জের সুরিয়াব এলাকার মো. মোস্তফার মিয়ার মেয়ে।

কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আবদুর রশিদ বলেন, রূপগঞ্জ থানায় করা একটি হত্যা মামলায়, নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালতে এক যুবককে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদন্ডের আদেশ প্রদান করেন। বর্তমানে আসামী হাজতে আছে।

আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর এড. মো. রকিবুদ্দিন আহমেদ রকিব বলেন, বিয়ের সময় মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ ৯০ হাজার টাকা যৌতুক হিসেবে দেন ফাতেমার বাবা। কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই বিভিন্ন অজুহাতে আব্দুর রহিম আরো এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। যৌতুকের এ টাকার জন্য ফাতেমাকে বিভিন্ন সময় তিনি নির্যাতন করতে থাকেন। ২০১৮ সালের ৫ নভেম্বর টাকার জন্য ফাতেমাকে মারধর করে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহত ফাতেমার বাবা মোস্তফা বাদী রূপগঞ্জ থানায় মামলা করেন। মামলার বিচার কার্যক্রম শেষে রোববার এ রায় দেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ২৩:২৫:৫৯   ৩৭ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)