বাংলাদেশের অর্থনীতির পুনর্গঠনে পাশে থাকবে জাপান: রাষ্ট্রদূত

প্রথম পাতা » ছবি গ্যালারী » বাংলাদেশের অর্থনীতির পুনর্গঠনে পাশে থাকবে জাপান: রাষ্ট্রদূত
সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪



বাংলাদেশের অর্থনীতির পুনর্গঠনে পাশে থাকবে জাপান: রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি বলেছেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির পুনর্গঠনে পাশে রয়েছে জাপান। অর্থনৈতিক উন্নয়নে আগের মতোই পাশে থাকবে জাপান সরকার।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর দফতরে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন রাষ্ট্রদূত।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি বিনিয়োগ আরও বাড়ানোর বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির পুনর্গঠনে পাশে রয়েছে জাপান। অর্থনৈতিক উন্নয়নে আগের মতোই পাশে থাকবে জাপান সরকার।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে (রিজার্ভ) সংকট আছে কিন্তু আমরা তা কাটিয়ে উঠছি। ধীরে ধীরে আমরা উন্নতি করছি। একই সঙ্গে বাংলাদেশ (রিজার্ভ) এখন ঊর্ধ্বমুখী। বাংলাদেশ যে সম্ভাবনার দেশ, আমরা সেই ট্র্যাকেই ফিরে এসেছি।

এর আগে আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফএডি) আবাসিক প্রতিনিধি আর্নড হেমলিয়ারসের সঙ্গে বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর অ্যাগ্রিকাল্যারাল ডেভেলপমেন্টের প্রজেক্ট কার্যক্রম চালু রয়েছে। সেখানে তারা নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে আসছে, সেগুলো নিয়েই আলোচনা হচ্ছে।

বৈঠকে নির্দিষ্ট কোনো বিষয়ে ফোকাস করার কথা বলা হয়েছে কি না, সংবাদকর্মীদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সে রকম কিছু নেই। তবে তারা ধীরে ধীরে উন্নয়নে কাজ করে। প্রতিবছরই আমাদের সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়। এ বছর ইনোভেশন (উদ্ভাবনী) বিষয়ে বাংলাদেশসহ অন্য সবার সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়েছে।

আইএফএডি বলেছে, তারা আরও সহযোগিতা চায়। সেদিক থেকে বাংলাদেশের প্রত্যাশা কী, এমন প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, সবাই তাদের আইডিয়ার কথা বলে। বাংলাদেশে এখন অনেক ধরনের সমস্যা আছে। এর মধ্যে মার্কেটিং একটি। কৃষকের কাছ থেকে পণ্য ঢাকায় আসতে আসতে তা মধ্যস্বত্বভোগীদের হাতে চলে যায়, যা একটি বড় সমস্যা। আমরা চিন্তভাবনা করছি কীভাবে এটিকে পরিবর্তন করা যায়। আইএফএডি এখানে সব সময় আমাদের সাহায্য করে। শুধু তারা একা নয়, আমাদের অনেক ডেভেলপমেন্ট পার্টনার আছে, যেমন: জাপান, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক; তারাও বিভিন্ন আইডিয়া নিয়ে আসে। তারপর মিলেমিশে আমরা একটি পথ বের করে কাজ শুরু করি।

তিনি বলেন, আমরা কোনো নিদিষ্ট দেশের ওপর নির্ভরশীল না। কিন্তু আমরা সবার সঙ্গে পরামর্শ করে কাজ করি। তাদের আইডিয়া গ্রহণ করি এবং তা বড় করি। আর্থিকভাবে বিভিন্ন পার্টনার আমাদের সহায়তা করে।

এর আগে সকালে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও ফ্রান্সের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেন অর্থমন্ত্রী। বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, দেখা যাক, বাংলাদেশ তো এখন ভালো করছে। তবে আমরা সমস্যা থেকে একেবারে বের হয়ে গেছি, তা কিন্তু নয়। কিন্তু বিষয়টি তো চলছে।

এডিবি নতুন কোনো কমিটমেন্ট করেছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নিশ্চয়ই করেছে, তারা তো বাংলাদেশকে সাহায্য করছে। এটি চলতে থাকবে। তা ছাড়া একটি প্রশ্ন অনেকেই বলেন যে বাংলাদেশ কি দেউলয়া হয়ে গেল? না, বাংলাদেশ কোথায় দেউলিয়া। এত বড় একটা দেশে দেউলিয়া হতে পারে না। আমাদের রিজার্ভ উন্নতি করছে।’

দেশের সংকট কেটে যাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সংকট অন গোয়িং। সংকট আছে কিন্তু আমরা ওভারকাম করছি। ধীরে ধীরে আমরা উন্নতি করছি।’

বাংলাদেশ সময়: ১৫:৫৬:৩৩   ১৪ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

ছবি গ্যালারী’র আরও খবর


আজকের রাশিফল
আল কোরআন ও আল হাদিস
স্বাস্থ্য খাত নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা পূরণ হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বিলুপ্ত ও পরিত্যক্ত জলাশয় সংস্কার করতে হবে: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী
পেশাদারিত্ব ও দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখে দেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করার জন্য জেলা প্রশাসকদের প্রতি ধর্মমন্ত্রীর আহ্বান
রাষ্ট্রপতির ভাষণ প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা সরকারের এক উন্নয়ন কাব্য : শিক্ষামন্ত্রী
রোহিঙ্গাদের মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবর্তন নিশ্চিতের গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী
চলচ্চিত্র নির্মাণে সরকারি অনুদানে আরও স্বচ্ছতা ও পেশাদারিত্ব নিশ্চিত করা হবে : আরাফাত
পাটখাতের উন্নয়নে আমূল পরিবর্তনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে - বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী
অর্ধেকের বেশি নারীর হয় বাল্য বিয়ে: মহিলা ও শিশু প্রতিমন্ত্রী

News 2 Narayanganj News Archive

আর্কাইভ