নগরীতে বসবে কৃষকদের উৎপাদিত বিষমুক্ত পণ্যের বাজার

প্রথম পাতা » ছবি গ্যালারী » নগরীতে বসবে কৃষকদের উৎপাদিত বিষমুক্ত পণ্যের বাজার
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২



---

নারায়ণগঞ্জ নগরবাসীর নিরাপদ খাদ্যের চাহিদা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কৃষকদের উৎপাদিত বিষমুক্ত পণ্য বিক্রির জন্য দুটি বাজার বসানোর ব্যবস্থা করছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন।

এই বাজারে কৃষকেরা তাঁদের খামারে উৎপাদিত বিষমুক্ত পণ্য সরাসরি বিক্রির জন্য বসবেন। থাকবে না কোনো মধ্যস্বত্বভোগী। এতে নগরবাসীর পুষ্টির চাহিদা পূরণের পাশাপাশি লাভবান হবেন কৃষকেরা।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) বেলা ১১টায় নগর ভবনে নেদারল্যান্ডস দূতাবাস, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা এবং ওয়ার্ক ফর আ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের সম্মিলিত উদ্যোগে আয়োজিত ‘নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে এলাকাভিত্তিক কৃষকের বাজার স্থাপন’ শীর্ষক প্রকল্পের প্রারম্ভিক সভায় এসব তথ্য জানানো হয়।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা বাসনা আখতার বলেন, কৃষকের বাজারে আমরা খামারি দেব এবং নিরাপদ খামারিদের সার্টিফাই করব। মানুষ যাতে আস্থা নিয়ে কৃষকের বাজার থেকে কিনতে পারেন।

এই বাজারে কৃষকের লাভের বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে বলে জানান নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি বিপণন কর্মকর্তা রোকেয়া আক্তার। নগর–পরিকল্পনাবিদ মঈনুল ইসলাম বলেন, নিরাপদ পণ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে ভোক্তাদের সচেতন করা হলে পণ্যের দাম কিছুটা বেশি হলেও তাঁরা পণ্য ক্রয়ে আগ্রহী হবে।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার ঢাকা ফুড সিস্টেম প্রকল্পের আওতায় নারায়ণগঞ্জ শহরের ১২ নম্বর ওয়ার্ডের ডনচেম্বার ও ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের নিমতলী এলাকায় প্রতি সপ্তাহে এক দিন বিষমুক্ত পণ্যের বাজার বসবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর ও মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক যাচাইকৃত ১০ জন কৃষক তাঁদের উৎপাদিত নিরাপদ ও বিষমুক্ত পণ্য ক্রেতাদের কাছে সরাসরি বিক্রি করবেন। এসব পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত পর্যন্ত মনিটরিং করা হবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক তাজুল ইসলাম বলেন, কৃষকের উৎপাদিত বিষমুক্ত পণ্য নিয়ে কৃষকের বাজারে নিয়ে আসা যেতে পারেন। বিষমুক্ত পণ্য উৎপাদনে তদারিক করা হবে। কৃষকদের জৈব বালাইনাশক, জৈব সারসহ বিভিন্ন উপকরণ সহায়তা প্রদান করতে হবে। কৃষকের জন্য যথাযথ লাভ যদি নিশ্চিত করা যায়, তাহলে বাজারটি টেকসই হবে।

অর্গানিক পণ্য নিশ্চিত করা কঠিন কিন্তু বিষমুক্ত নিরাপদ সবজি নিশ্চিত করা সহজ বলে মনে করেন ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ। তিনি বলেন, কৃষকের বাজারে কৃষকদের সব সুযোগ–সুবিধা প্রদান করা হবে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে কৃষক ও পণ্যের মান নিশ্চিত করতে হবে। সিটি করপোরেশনকে সম্পৃক্ত করা হলে কৃষকের বাজারকে টেকসই করা সম্ভব।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মিনোয়ারা বেগম, শারমিন জাহান, প্রধান সমাজকল্যাণ ও বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা কে এম ফরিদুল মিরাজ, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আয়নাল হক, নারায়ণগঞ্জ এলআইইউপিসির-ইউএনডিপির টাউন ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সহসভাপতি তারিক বাবু, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ফুড সিটি কো-অর্ডিনেটর আনোয়ারুল ইসলাম, সাসটেইনেবল অ্যাগ্রিকালচার স্পেশালিস্ট জাহাঙ্গীর আলম, ওয়ার্ক ফর আ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের পরিচালক গাউস পিয়ারী।

অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন ওয়ার্ক ফর আ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের সিনিয়র প্রজেক্ট ম্যানেজার জিয়াউর রহমান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রজেক্ট ম্যানেজার নাঈমা আক্তার।

বাংলাদেশ সময়: ২২:১১:১২   ৩৬ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

ছবি গ্যালারী’র আরও খবর


আল কোরআন ও আল হাদিস
আজকের রাশিফল
বেরোবি পথ দেখাবে উত্তরের মানুষকে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী
গ্রিসে জাতীয় শোক দিবস পালন
নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ মিশনে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন
দেশে মুজিব আদর্শ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, এটাই সবচেয়ে বড় জয় : খালিদ মাহমুদ চৌধুরী
বিনম্র শ্রদ্ধায় ইতালিতে ‘জাতীয় শোক দিবস’ পালিত
ষড়যন্ত্রকারীরা বর্ণচোরা, তাদের চিনে রাখতে হবে - স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বৈশ্বিক অস্থিরতা দূর করতে বঙ্গবন্ধুর দর্শন সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে হবে - অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার
বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ পরিশোধই হোক আমাদের শপথ - শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আর্কাইভ