ঢাকার ভূ-রাজনৈতিক অবস্থানকে দৃঢ় করেছে আইওসি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রথম পাতা » ছবি গ্যালারী » ঢাকার ভূ-রাজনৈতিক অবস্থানকে দৃঢ় করেছে আইওসি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
শনিবার, ১৩ মে ২০২৩



ঢাকার ভূ-রাজনৈতিক অবস্থানকে দৃঢ় করেছে আইওসি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন আজ বলেছেন, ভারত মহাসাগর সম্মেলন-২৩ (আইওসি-২৩) আয়োজনের মাধ্যমে পরিবর্তনশীল ভূ-রাজনৈতিক ও ভূ-অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অংশিদার হিসেবে বাংলাদেশের অবস্থান আরও দৃঢ় হয়েছে।
তিনি আজ আইওসি’র সমাপনীর পর এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে ভার্চুয়ালি বলেন, ভারত মহাসাগর অঞ্চলের দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের অংশীদারিত্ব আঞ্চলিক রাজনীতির প্রেক্ষাপটে আইওসি ২০২৩-এর আয়োজন করে দৃঢ় হয়েছে।
ষষ্ঠ ভারত মহাসাগর সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, বাংলাদেশ এমন একটি ভারত মহাসাগরের কল্পনা করে যা মুক্ত, উদার, শান্তিপূর্ণ, নিরাপদ এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং সকলের জন্য অভিন্ন সমৃদ্ধি বিকশিত করে।
তিনি বলেন, আমরা এই লক্ষ্যে আমাদের সমস্ত আঞ্চলিক অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি আধুনিক, জ্ঞান-ভিত্তিক উন্নত দেশ প্রতিষ্ঠার ‘ভিশন ২০৪১’ অর্জনের জন্য ভারত মহাসাগরে স্থিতিশীলতা এবং সমৃদ্ধি একটি অপরিহার্য উপাদান হিসাবে বিবেচনা করে।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বাস করে যে ভারত মহাসাগর বৈশ্বিক জিডিপি, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, জলবায়ু কর্মকান্ডে এবং বৈশ্বিক শান্তি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করার জন্য প্রযুক্তিগত অগ্রগতিতে উল্লেখযোগ্যভাবে অবদান রাখতে পারে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি ফলাফল-ভিত্তিক এই অঞ্চলে সহযোগিতা প্রসারিত করতে প্রস্তুত রয়েছে যা এই অঞ্চলের সাধারণ কল্যাণের জন্য অর্জনকে বাড়িয়ে তুলবে।
সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ছয়টি অগ্রাধিকারের ক্ষেত্রকে গুরুত্ব দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন, মেগুলো হলো- সামুদ্রিক কূটনীতি, জলবায়ু পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা, অংশীদারিত জোরদার করা, সামুদ্রিক সুরক্ষা ও নিরাপত্তার জন্য ব্যবস্থা জোরদার করা, শান্তির সংস্কৃতি প্রচার করা এবং ন্যায়সঙ্গত ও টেকসই উন্নয়নকে উৎসাহিত করা।
তিনি বলেন, এগুলোর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে, আমরা আমাদের জন্য একটি ভালো ভবিষ্যত নিশ্চিত করার জন্য ভারত মহাসাগরের দেশগুলোর মধ্যে আমাদের সহযোগিতা ও সহযোগিতা গড়ে তুলতে পারি।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বিশ্বের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মাধ্যাকর্ষণ কেন্দ্র পূর্ব দিকে এশিয়া ও আফ্রিকার দিকে অগ্রসর হচ্ছে।
তিনি বলেন, ভারত মহাসাগর অঞ্চলের গুরুত্বের কোনো পুনরাবৃত্তির প্রয়োজন নেই, বিশেষ করে এমন অনেক দেশের জন্য যাদের অস্তিত্ব, সমৃদ্ধি এবং নিরাপত্তা ছিল এবং সবসময়ই এর সঙ্গে নিবিড়ভাবে যুক্ত থাকবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ ভৌত, প্রাতিষ্ঠানিক, জ্বালানি, ডিজিটাল এবং মানবিক সংযোগ বৃদ্ধি, পণ্য, পরিষেবা, পুঁজি এবং জনগণের চলাচলকে সুশৃঙ্খলভাবে সহজতর করে এবং এই অঞ্চলে প্রযুক্তি হস্তান্তর এবং উদ্ভাবনগুলোতে প্রবেশাধিকার প্রচারে ব্যাপক জোর দেয়।
তিনি বলেন, আমরা এই অঞ্চলের অন্যান্য দেশগুলোর খাদ্য নিরাপত্তা, পানির মৈত্রী এবং দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসের প্রচারে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহন এবং সহযোগিতা চাই।
তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন, জীববৈচিত্র্যের ক্ষতি, সামুদ্রিক দূষণ এবং পরিবেশের ওপর অন্যান্য উল্লেখযোগ্য ও ক্ষতিকর প্রভাবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
সরকারের পক্ষ থেকে পররাষ্ট্র সচিব ঢাকায় অনুষ্ঠিত এই ৬ষ্ঠ ভারত মহাসাগর সম্মেলন-২০২৩-এ অংশগ্রহণকারী সকল দেশের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
শুক্রবার সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং অন্যান্যদের মধ্যে মরিশাসের রাষ্ট্রপতি ও মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩:৩২:৩৯   ১১৬ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

ছবি গ্যালারী’র আরও খবর


আবারও দিল্লি সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
সাকিবের হাফ-সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৫৯ রান
মিন্টুকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন : ডিবি
ফরিদপুরে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার
বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর
ঈদুল আযহা উপলক্ষে অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান বাংলাদেশ অতিরিক্ত ফ্লাইট চালু করেছে
দেশে আবাদযোগ্য জমি প্রায় ৫৯ শতাংশ : কৃষিমন্ত্রী
সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কোরবানির পশুবাহী পরিবহন থামানো যাবে না : আইজিপি
পরিবেশ প্রকৃতি রক্ষায় গুরুত্ব দিতে হবে : সাবের চৌধুরী
উন্নয়নের গতি থামিয়ে রাখার সুযোগ নেই: তাজুল ইসলাম

News 2 Narayanganj News Archive

আর্কাইভ