গাছ রক্ষায় মেয়রের কাছে দাবিনামা উপস্থাপন

প্রথম পাতা » ছবি গ্যালারী » গাছ রক্ষায় মেয়রের কাছে দাবিনামা উপস্থাপন
মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪



গাছ রক্ষায় মেয়রের কাছে দাবিনামা উপস্থাপন

শীতলক্ষ্যা পাড়ের গাছ রক্ষায় সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের কাছে দাবিনামা উপস্থাপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেল ৩টায় ওই দাবিনামা উপস্থাপন করা হয়।

শীতলক্ষ্যা পাড়ের গাছ রক্ষায় নারায়ণগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সমন্বয়কারী কবি আরিফ বুলবুল, সদস্য সচিব শুভ দেব, সমগীত সংস্কৃতি প্রাঙ্গণে সাবেক সভা প্রধান শিল্পী অমল আকাশ, সাংবাদিক আফসার বিপুল, গণসংহতি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটির সদস্য শুক্কুর মাহমুদ জুয়েল, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের জেলা সভাপতি ফারহানা মুনা, সাধারণ সম্পাদক সৃজয় সাহা, প্রথম আলো বন্ধুসভার জেলা সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিন্টু সহ প্রমুখ ব্যাক্তিবর্গ।

আরিফ বুলবুল বলেন, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ পৃথিবীর অন্যতম দূষিত একটি শহর। এই শহরের প্রাকৃতিক পরিস্থিতি এতোটাই ভয়াবহ যে এখানে প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় হাই এলার্ট জারি করা প্রয়োজন। এই রকম দশা হতে মুক্তির জন্য এখানে প্রচুর পরিমাণ গাছ লাগানো ও সামাজিক বনায়ন জরুরী। যেখানে একটি গাছ কাটলেই পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে, সেখানে প্রাণ-প্রকৃতির বিষয়ে পরোয়া না করে, কেবল অবকাঠামোগত উন্নয়নের নামে বি আাই ডব্লিউ টি এ কর্তৃক এতোগুলো গাছ কাটাকে আমরা প্রাণ-প্রকৃতির বিরুদ্ধে জঘন্যতম অপরাধ হিসেবে দেখি।

তিনি আরও বলেন, আমরা জানি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নারায়ণগঞ্জ শহরকে প্রাণ-প্রকৃতিবান্ধব করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা আগেও সিটি কর্পোরেশনকে এ বিষয়ে স্মারকলিপি দিয়েছি। আমাদের চাওয়া হচ্ছে সিটি কর্পোরেশন যেন এক্ষেত্রে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করে। সবার অংশগ্রহণ ছাড়া শহরের প্রাণ-প্রকৃতি পরিবেশ রক্ষা করা সম্ভব না। নইলে চরম ক্ষতি একবার হয়ে গেলে তা আর ফিরিয়ে আনা যাবে না।

দাবীসমূহ:
১. অবিলম্বে শীতলক্ষ্যা নদী তীরের গাছ কাটা বন্ধ করতে হবে।
২. প্রকল্পের নাম করে যেসকল গাছ ইতিমধ্যে কাটা হয়েছে তার একেকটির বদলে কমপক্ষে পাঁচটি করে দেশী গাছ রোপণ করতে হবে।
৩. তিন নং মাছ ঘাট এলাকায় যে পূর্ণবয়স্ক বটগাছটিকে
আঘাত করা হয়েছে সেইটিসহ যেই গাছগুলো এখনও কাটা হয়নি কিন্তু কাটার পরিকল্পনা রয়েছে, সেই গাছগুলোকে বাঁচিয়ে রেখে উন্নয়ন প্রকল্পের নকশা প্রনয়ণ করতে হবে।
৪. শীতলক্ষ্যা নদী ও নদী পাড়ের প্রাণ-বৈচিত্রকে ধ্বংস করে এমন কোনো উন্নয়ন প্রকল্প প্রণয়ন করা যাবে না।
৫. বর্তমান বিআইডব্লিউটিএর অফিস থেকে বট গাছ পর্যন্ত জায়গাটিতে কোন আচ্ছাদন তৈরি করা চলবে না। জায়গাটিতে গাছ লাগাতে হবে এবং বাকি জায়গা ফাঁকা রাখতে হবে।
৬. নদীপাড়ের কোন জায়গা সংরক্ষিত করা চলবে না। জনসাধারণের চলাচলের জন্য অবারিত রাখতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩:৫৯:২৯   ১০৩ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

ছবি গ্যালারী’র আরও খবর


আজকের রাশিফল
‘আমাদের লক্ষ্য হস্ত ও কুটির শিল্পকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া’
প্রধানমন্ত্রী বগুড়াবাসীকে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার ও জয় স্মার্ট ডি-সেট সেন্টার উপহার দিচ্ছেন : পলক
প্লাইমাউথের কাছে হেরে প্রিমিয়ার লিগে উন্নতির পথে বড় ধাক্কা খেলো লিস্টার
ঈদের ছুটিতে রোগীদের খোঁজ-খবর নিলেন বিএসএমএমইউর উপাচার্য
সঠিক শিক্ষা একটি জাতিকে সঠিকপথে পরিচালিত করে -ভূমিমন্ত্রী
বাঙালিত্বের সঙ্গে ধর্মের কোনো সংঘর্ষ নেই - সমাজকল্যাণ মন্ত্রী
সোমালিয়ার জলদস্যুদের চেয়েও বিএনপি অনেক বেশি ভয়ঙ্কর : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ফেনী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স মিলনায়তনের উদ্বোধন
ঈদে চিকিৎসা সেবায় কোন ব্যাঘাত ঘটেনি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

News 2 Narayanganj News Archive

আর্কাইভ