কারেন্ট জালসহ নিষিদ্ধ অন্যান্য জাল উৎপাদন বন্ধ করতে হবে - মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রথম পাতা » চট্টগ্রাম » কারেন্ট জালসহ নিষিদ্ধ অন্যান্য জাল উৎপাদন বন্ধ করতে হবে - মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী
সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪



কারেন্ট জালসহ নিষিদ্ধ অন্যান্য জাল উৎপাদন বন্ধ করতে হবে - মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

কারেন্ট জালসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত অন্যান্য জাল উৎপাদন বন্ধ করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মোঃ আব্দুর রহমান।

আজ চাঁদপুর জেলার সদর উপজেলার মোলহেড-এ ‘জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ ২০২৪’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাং সেলিম উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ডা. দীপু মনি, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ মোঃ আলমগীর, চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় মৎস্য মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের মৎস্য সম্পদ রক্ষার দায়িত্ব আমাদের সকলের। অথচ অবৈধভাবে জাটকা আহরণের নেপথ্যে কিছু মানুষ কাজ করে থাকে। জাটকা ধরার সাথে জড়িতরা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন জাটকা ধরলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। যারা কারেন্ট জালসহ অবৈধ জাল ব্যবহার করে জাটকাসহ রেণুপোনা ধরে ফেলে তারা সমাজ ও দেশের শত্রু। দেশের মৎস্য সম্পদের যারা শত্রু তাদের ব্যাপারে কোনো তদবির শোনা হবে না এবং এ ব্যাপারে কঠোরতা অবলম্বন করা হবে বলে তিনি এ সময় জানান।

মৎস্য মন্ত্রী বলেন, জাটকা ইলিশ সংরক্ষণ এবং ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য বিগত বছরের ন্যায় এ বছরও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে মৎস্য অধিদপ্তর ১১ মার্চ হতে ১৭ মার্চ পর্যন্ত ‘জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০২৪’ উদ্‌যাপনের লক্ষ্যে নানাবিধ কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহের এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘ইলিশ হলো মাছের রাজা, জাটকা ধরলে হবে সাজা’।

মোঃ আদ্বুর রহামন বলেন, জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে তাঁর সুযোগ্য উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ২০০৯ সালে দায়িত্ব গ্রহণের পর ইলিশসহ সকল মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি ও মৎস্য সম্পদের সাথে জড়িত মৎস্য চাষী, জেলে ও মৎস্যজীবীদের জীবনমান উন্নয়নে বাস্তবভিত্তিক ও সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করে। যার ফলে ২০২২-২৩ অর্থবছরে ইলিশের উৎপাদন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৭১ লাখ মেট্রিক টনে যা ২০০২-০৩ অর্থবছরে ছিল মাত্র ১ দশমিক ৯৯ লাখ মে.টন। দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনের ১২ ভাগ ইলিশ থেকে আসে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, অর্থনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ এ মৎস্য প্রজাতির উৎপাদন বৃদ্ধি ও এ সম্পদের টেকসই উন্নয়নে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। শুধু ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিই নয়, জনবান্ধব এ সরকার জেলে ও মৎস্যজীবীদের উন্নয়নেও বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

মন্ত্রী বলেন, ইলিশ আমাদের জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ, আর এই সম্পদ রক্ষার দায়িত্ব আমাদের সকলের। দেশের সকল মানুষের হাতের নাগালে ইলিশ মাছ যেমন পৌঁছে দিতে চাই তেমনি দেশের চাহিদা পূরণ করে বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে চাই।

এ লক্ষ্যে মা ইলিশ রক্ষা ও জাটকা সংরক্ষণে আপামর জনগণকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধকরণের জন্য প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া যে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করছেন তার জন্য তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩:৪২:০৮   ৪৭ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

চট্টগ্রাম’র আরও খবর


সিলেট-কুমিল্লা অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা
৪৮ ঘণ্টা পর কক্সবাজারে বিমান ওঠানামা স্বাভাবিক
ঝড়ে পড়া গাছ সরাচ্ছিলেন ফায়ার ফাইটার, হঠাৎ বিদ্যুৎ আসায় গেল প্রাণ
ঘূর্ণিঝড় রেমালের তান্ডবে প্রাণ গেল ৭ জনের
সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
প্রধানমন্ত্রীর প্রতিটি কাজে রয়েছে জনগণের কল্যাণ – অর্থ প্রতিমন্ত্রী
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১৩ ইউনিট
উখিয়ায় গহীন পাহাড়ে অভিযান, আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ সন্ত্রাসী আটক
বিএনপি জনগণকে ভয় পায় বলেই ভোটে আসে না: নৌপ্রতিমন্ত্রী
চান্দিনায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত

News 2 Narayanganj News Archive

আর্কাইভ